How to deal with dandruff in young children

শিশুদের বেড়ে ওঠার সময় তাদের মধ্যে ত্বকের সমস্যা দেখা যাওয়া সাধারণ একটি ঘটনা,এর কারণ হল তাদের ত্বক তখনও সংবেদনশীল হয় এবং তাদের চারপাশের ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে প্রতিরক্ষা গড়ে তুলতে থাকে।বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই,শিশুর ত্বকের কোন জায়গায় তারা আক্রান্ত করে তার উপর নির্ভর করে তার বিরক্তি এবং অস্বস্তি হতে পারে।খুশকি হল এমনই একটি ত্বকজনিত অবস্থা যা আপনার বাচ্চার মাথার ত্বকের উপর প্রভাব ফেলে।এটি হল অন্যতম একটি অত্যন্ত সাধারণ এবং ব্যাপক-বিস্তৃত সংক্রমণ যা শিশুদের মধ্যে হয়ে থাকে।

খুশকি কি?

খুশকি হল ত্বকের সমস্যার একটি হালকা রূপ যা সেবোরিহা ডার্মাটাইটিস নামে পরিচিত।এটি মাথার ত্বকের উপরের আঁশের ন্যায় স্তরে এবং মাঝেমধ্যে আবার এমনকি ভ্রু ও চোখের পাতের লোমের সাথেও জড়িত হয়।এতে ত্বকের আঁশ ওঠে এবং তারপর ছোট ছোট সাদা আস্তরণ হিসেবে আঁইশাকার স্তর দেখা যায়।যদিও খুশকি অক্ষতিকারক হয়ে থাকে,এটির কারণে লালচে ভাব এবং চুলকুনি হতে পারে।যদি খুশকিকে চিকিৎসা না করে ফেলে রাখা হয়,এটি চুল ঝরে যাওয়ার কারণ হয়ে উঠতে পারে।যদি আপনার বাচ্চার অত্যধিক পরিমাণে অস্বাভাবিক ভাবে চুল ঝরে যেতে থাকে তবে একজন ডাক্তারের সাথে দেখা করা নিশ্চিত করুন,কারণ অন্যান্য কিছু সমস্যার ক্ষেত্রেও এই একই উপসর্গ দেখা দিতে পারে।এই ধরণের একটি অবস্থা হল শিশুদের মধ্যে উকুনের উপদ্রব হওয়া।যদিও খুশকির চিকিৎসার জন্য বিভিন্ন ওভার দ্য কাউন্টার প্রতিকারগুলি বাজারে সহজলভ্য,তবুও এর যেকোনও একটিকে নির্বাচনের আগে ডাক্তারী পরামর্শ গ্রহণের পরামর্শই আপনাকে দেওয়া হচ্ছে,কারণ বেশ কিছু চিকিৎসাই এক্ষেত্রে আপনার বাচ্চার মধ্যে অ্যালার্জি প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে।

শিশুদের খুশকি হওয়ার কারণসমূহ

আপনার বাচ্চার মাথায় খুশকি হওয়ার নানান কারণ আছে।সেগুলির মধ্যে অন্তর্ভূক্ত হলঃ

  • ফাঙ্গাসের বৃদ্ধিঃ ফাঙ্গাস ম্যালাসেসিয়ার কারণে মাথার ত্বকের উপর মৃত ত্বকের কোষগুলি অত্যধিক পরিমাণে স্খলিত হতে পারে।যখন এই কোষগুলি তৈল গ্রন্থিগুলি দ্বারা উৎপাদিত সেবামের সাথে মিশে যায়,তখন এটি খুশকি উৎপাদনের কারণ হয়ে ওঠে।
  • অতিরিক্ত শ্যাম্পু করাঃ খুব বেশী শ্যাম্পু ব্যবহারের ফলে মাথার ত্বকের সমস্ত প্রাকৃতিক তেলগুলি উধাও হয়ে যেতে পারে।এই কারণে ত্বক শুকনো হয়ে যায় যা পরিণামস্বরূপ খুসকিতে রূপান্তরিত হয়।ত্বকের উপর রাসায়নিকের প্রভাবের কারণে কখনও কখনও আবার ডার্মাটাইটিস বা চর্মরোগ হওয়ার সম্ভাবনাও থেকে যায়।
  • পর্যাপ্ত শ্যাম্পু না করার কারণেঃ মাথার ত্বকের স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে চলা খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি মৃত ত্বক,ময়লা এবং তেলকে খুব দ্রুত একত্রিত করে যা খুশকি সৃষ্টি করে।
  • ত্বকের অবস্থাঃ বেশ কিছু নির্দিষ্ট ধরনের ত্বকের অবস্থার কারণেও খুশকি হয়ে থাকে।একজিমা এবং সোরিয়াসিস এগুলির মধ্যে অন্তর্ভূক্ত।
  • তাপঃ যদি মাথার ত্বক অতিরিক্ত তাপের সংস্পর্শে আসে,যেমন ধরুন,সরাসরি সূর্যালোকের নীচে যখন তাকে নিয়ে দাঁড়ান,এটি খুশকিকে বাড়িয়ে তুলতে পারে।
  • আর্দ্রতাঃ আর্দ্রতার অভাবের কারণে বিশেষত শীতকালে,মাথার ত্বক শুকিয়ে গিয়ে খুশকির প্রকোপ বেড়ে যায়।
  • তৈলাক্ত মাথার ত্বকঃ ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখতে এবং সেটিকে স্বাস্থ্যকর রাখতে সকলের মাথার ত্বকই তেল উৎপাদন করে থাকে।কিন্তু এই তেল উৎপাদনের পরিমাণ যদি অতিরিক্ত হয়ে থাকে,তবে সেটি খুশকির কারণ হয়ে ওঠে।

 

শিশুদের মধ্যে খুশকির সঙ্কেত এবং উপসর্গগুলি

বাচ্চাদের খুসকি হওয়ার বিভিন্ন সঙ্কেত দেখতে পাওয়া যায় যেগুলি আপনি নজরে রাখতে পারেন।সেগুলির মধ্যে কয়েকটি হলঃ

  • মাথার ত্বক,কপাল এবং চোখের পাতার কাছাকাছি অঞ্চলের ত্বকের শুষ্কতা
  • ত্বকের অতিরিক্ত তৈলাক্ত ভাব
  • লালচে ভাব
  • চুলকানি
  • ত্বকের উপর সাদা আঁইশাকার স্তরের ন্যায় আস্তরণ

শিশুর মাথার উপর আঁশের ন্যায় আস্তরণ হওয়ার একমাত্র কারণ কি খুশকি?

আপনার সন্তানের মাথার উপরে আঁশের ন্যায় স্তরের উপস্থিতির জন্য খুশকি,এটি একটি অত্যন্ত সাধারণ কারণ হলেও,এটিই একমাত্র কারণ নয়।এর অন্যান্য কারণগুলি হলঃ

  • সানবার্ন বা রোদে পুড়ে ত্বকের ক্ষত
  • শ্যাম্পু করার পরে যথাযথভাবে না ধোয়া
  • ক্র্যাডল ক্যাপ
  • দাদ

খুশকি থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার উপায়সমূহ

শিশুদের খুশকির কিছু ঘরোয়া প্রতিকার যেগুলি আপনি ব্যবহারের চেষ্টা করতে পারেন,সেগুলি হলঃ

  • চুল আঁচড়ানোর চিরুনি বা ব্রাশ এবং শ্যাম্পুঃ একটি নরম ব্রিস্টল বা পশুর লোম দ্বারা প্রস্তুত ব্রাশ বা বাচ্চাদের নরম চিরুনি ব্যবহার করে আপনার সন্তানের মাথার ত্বকটিকে ধীরে ধীরে ব্রাশ করে বা আঁচড়ে ঝেরে দিন।এটি তার মাথা থেকে মৃত আঁইশাকার স্তরকে অপসারিত করবে।এরপর একটি হালকা শ্যাম্পু দিয়ে বাচ্চার চুল ধুয়ে দিন।
  • ওষুধযুক্ত শ্যাম্পুঃ যদি আপনার সন্তানের মাথায় খুশকি ক্রমশ বিস্তৃত হতে থাকে তবে আপনার শিশুরোগ বিশেষজ্ঞের সাথে এ ব্যাপারে আলোচনা করুন এবং তাঁকে প্রেসক্রিপশনে একটি ওষুধযুক্ত মেডিকেটেড শ্যাম্পু লিখে দিতে বলুন।আপনার ডাক্তারের নির্ধারিত পরামর্শের সাথে সাথে শ্যাম্পুর বোতলের উপরে উল্লিখিত নির্দেশাবলী অনুসরণ করুন।
  • কন্ডিশনার ব্যবহার নয়ঃ কোনও অবস্থাতেই আপনার বাচ্চার চুলে কন্ডিশনার ব্যবহার উচিত নয়।আদতে এটি তার চুল এবং মাথার ত্বকের প্রকৃতিকে গুরুতরভাবে পরিবর্তন অথবা ক্ষতিগ্রস্থ করে তুলতে পারে।
  • ধুয়ে পরিষ্কার রাখাঃ একটি নরম তোয়ালে দিয়ে মাথার চুলগুলিকে মুছে শুকনো করে তোলার আগে,শ্যাম্পুর যেকোনও কণাকে খুব ভালভাবে ধুয়ে পরিষ্কার করার মত যত্ন নেওয়ার ব্যাপারটিকে নিশ্চিত করুন।
  • প্রশমিত করুনঃ কখনও কখনও,প্রভাবিত ত্বকে আঁচড় লেগে যাওয়া অবস্থাটিকে আরো গুরুতর করে তুলতে পারে।সেই জায়গায় নারকেল তেল,অ্যালোভেরা অথবা এমনকি মাখনের মত পণ্যগুলির ব্যবহারও ত্বকের যেকোনও প্রদাহ এবং অস্বস্তিকে লাঘব করে তোলে।

এই ধরণের যেকোনও অবস্থার প্রেক্ষিতে চিকিৎসা শুরু করার আগে একজন ডাক্তারের সাথে আপনাকে আলোচনা করে নেওয়ার দৃঢ় পরামর্শই দেওয়া হয়।খুশকি অথবা অন্য যেকোনও ধরনের ত্বকের সমস্যায় স্ব-নির্ধারিত চিকিৎসা করবেন না এবং সুনির্দিষ্ট চিকিৎসা পরিকল্পনার জন্য বিশেষ করে আপনার সন্তানের ক্ষেত্রে অবশ্যই ডাক্তারী পরামর্শ গ্রহণ করুন।

প্রায়শই জিঞ্জাসিত প্রশ্নাবলী

১। শিশুদের খুশকি কি সংক্রামক?

যদিও খুশকি ব্যাপারটি একটি দৃষ্টিকটু হতে পারে অথবা এমনকি এটির কারণে আপনার শিশু চুলকানি এবং জ্বালা অনুভব করতে পারে,কিন্তু এটি সংক্রামক নয়। আপনার সন্তান অন্যান্য শিশু এবং বড়দের সাথে ঠিক আগের মতই তার যোগাযোগ বজায় রাখতে পারে।

২। ক্র্যাডল ক্যাপ কি এবং খুশকির সাথে এর পার্থক্য কতটা?

ক্র্যাডল ক্যাপকে আবার ইনফ্যান্টাইল সেবোরিহিক ডার্মিটাইটিস-ও বলা হয়ে থাকে এবং এটি এমন এক প্রকার ত্বকের অবস্থা যা শিশুদের উপর প্রভাব ফেলে।যদিও এটি শুরু হয় মাথার ত্বকের উপরে কিন্তু ক্রমশই সেটি দেহের অন্যান্য অংশেও ছড়িয়ে পড়তে পারে।অকস্মাৎ গজিয়ে ওঠা লাল ফুসকুড়ির দ্বারা এটিকে চিহ্নিত করা যায় যা ক্রমশ হলুদ,খসখসে খোলসযুক্ত ত্বকে পরিণত হতে থাকে,যখন স্পর্শ করা হয় আঁশের ন্যায় এই আস্তরনটি উঠতে শুরু করে।যদিও খুশকি যেকোনও বয়সের যে কাউকে যেকোনও সময়েই প্রভাবিত করতে পারে এবং এর জন্য প্রয়োজন হয় তার প্রতি মনোযোগ আকর্ষণের,ক্র্যাডল ক্যাপ সাধারণত শিশুদের জীবনের প্রথম তিন মাসের মধ্যে তাদের উপর প্রভাব ফেলে এবং সেটি শুধুমাত্র তাদের প্রথম এক বছর বয়স পর্যন্তই স্থায়ী থাকে।

যদি খুশকি উপশমের কোনও রকম লক্ষণ ব্যতীত দীর্ঘমেয়াদী হয়ে থাকে অথবা যদি খুশকির কারণে চুল পড়া অস্বাভাবিক হারে বেড়ে যেতে থাকে তবে অবশ্যই এ ব্যাপারে চিকিৎসা করার দিকে মনোযোগ আকর্ষণ করা উচিত।আপনার শিশুর ত্বক এবং মাথার ত্বকে আপনি কেবল ভাল মানের ব্র্যান্ডেড পণ্যগুলিই ব্যবহার করবেন তা নিশ্চিত করুন।আপনার সন্তানের মাথার সংবেদনশীল ত্বকটিকে রক্ষা করতে যখনই বাইরে যাবেন তার মাথাটিকে ঢেকে দেবেন।যদি আপনি প্রত্যহ আপনার সোনাকে তেলের মালিশ করে থাকেন,তেলটিকে খুব দীর্ঘ সময়ের জন্য তার দেহে দিয়ে রেখে দেবেন না সেটি নিশ্চিত করার সময় তার মাথার ত্বককেও অবহেলা করবেন না সেটিও নিশ্চিত করুন। আপনার বাচ্চার মাথার ত্বকে হয়ে থাকা খুশকি নিয়ে খুব বেশী চিন্তা করবেন না,কারণ এই অবস্থাটি ঠিক হয়ে যাওয়া সহজ।আপনি যদি এখনও এ ব্যাপারে চিন্তিত হয়ে থাকেন তবে একজন পেডিয়াট্রিক ডার্মাটোলজিস্টের সাথে কথা বলতে পারেন।বাচ্চাদের খুশকি প্রতিরোধে্র একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হল যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে স্বাস্থ্যকর থাকা,নিয়মিত তাদের চুল ধুয়ে দেওয়া,যদি চুল খুব রুক্ষ্ম হয়ে ওঠে তেল প্রয়োগ করা এবং এমন ধরনের শ্যাম্পু ব্যবহার করা নিশ্চিত করুন যেটি আপনার সন্তানের চুলের ধরনের জন্য একদম উপযুক্ত।